সেঞ্চুরি দিয়েই শেষটা রাঙালেন কুক

সেঞ্চুরি দিয়েই শেষটা রাঙালেন কুক

নিউজডেস্ক২৪: লন্ডনের কেনিংটন ওভালে ভারতের বিপক্ষে ক্যারিয়ারের শেষ টেস্ট খেলছেন অ্যালিস্টার কুক। বিদায়ী ম্যাচের প্রথম ইনিংসে ৭১ রান করেছিলেন। তবে সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে শেষ ইনিংসটা স্মরণীয় করে রাখলেন কুক। ২১০ বল খেলে ৮টি চারের সাহায্যে টেস্ট ক্যারিয়ারের ৩৩তম সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন ইংলিশ এই ওপেনার।

২০১৭ সালের ডিসেম্বরের পর টেস্টে সেঞ্চুরির দেখা পান তিনি। টেস্ট ক্রিকেট ইতিহাসে অভিষেক ও বিদায়ী ম্যাচে পঞ্চম ব্যাটসম্যান হিসেবে সেঞ্চুরি হাঁকানোর রেকর্ড গড়লেন তিনি। ২০০৬ সালে ভারতের বিপক্ষে নাগপুরে অভিষেক হয় কুকের। সেদিন ক্যারিয়ারের প্রথম টেস্ট খেলতে নেমে প্রথম ইনিংসে খেলেছিলেন অর্ধশত রানের ইনিংস। দ্বিতীয় ইনিংসে করেছিলেন অপরাজিত ১০৪ রান। ক্যারিয়ারের এক যুগ পর যেন আবারও নিজেকে জানান দিলেন এই ইংলিশ ব্যাটসম্যান।

এর আগে অভিষেক ও বিদায়ী ম্যাচে সেঞ্চুরি হাঁকানোর রেকর্ড গড়েছিলেন অস্ট্রেলিয়ার রেগি ডাফ, বিল পন্সফোর্ড, গ্রেগ চ্যাপেল ও ভারতের মোহাম্মদ আজহারউদ্দিন।

প্রথম টেস্টের মতো বিদায়ী ম্যাচে সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে আরেকটি রেকর্ড গড়লেন কুক। টেস্ট ক্রিকেট ইতিহাসে সর্বোচ্চ রান সংগ্রহের তালিকায় পাঁচ নম্বরে উঠে এলেন ৩৩ বছর বয়সী এই বাঁ-হাতি ব্যাটসম্যান। এই তালিকায় শচিন টেন্ডুলকার (সর্বোচ্চ ১৫৯২১ রান), রিকি পন্টিং (১৩৩৭৮), জ্যাক ক্যালিস (১৩২৮৯) ও রাহুল দ্রাবিড়ের (১৩২৮৮) পরই এখন কুকের (১২৪৭২) অবস্থান। এ রেকর্ডে কুক ছাড়িয়ে যান শ্রীলংকার কিংবদন্তি কুমার সাঙ্গাকারাকে।

১৫ বছরের টেস্ট ক্যারিয়ারে সাঙ্গাকারা ১২ হাজার ৪০০ রান সংগ্রহ করেন। টেস্টে সাঙ্গাকারার পরই বাঁ-হাতি ব্যাটসম্যান হিসেবে সর্বোচ্চ রান করেন কুক। শুধু তা-ই নয়, টেস্ট ক্রিকেট ইতিহাসে দ্বিতীয় ইনিংসে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ১৫টি সেঞ্চুরি হাঁকানোর রেকর্ড গড়েছেন তিনি। টেস্ট ম্যাচের তৃতীয় ইনিংসে সর্বোচ্চ ১৩টি সেঞ্চুরি হাঁকানোর রেকর্ডও গড়েন কুক। অনেক আগেই ইংল্যান্ডের হয়ে টেস্টে সর্বোচ্চ রান সংগ্রহের রেকর্ড গড়েছিলেন তিনি।

কুক ১৪৭ রান করে আউট হন। ভারতের বিপক্ষে পঞ্চম টেস্টের চতুর্থ দিন কুকের পর সেঞ্চুরি পান জো রুটও। জোড়া সেঞ্চুরিতে কেনিংটন ওভাল টেস্টে সুবিধাজনক অবস্থায় রয়েছে ইংল্যান্ড। এ রিপোর্ট লেখার সময় ৬ উইকেট হারিয়ে ৩৬৪ রান সংগ্রহ করে স্বাগতিকরা। আগেই পাঁচ টেস্ট ম্যাচ সিরিজ (৩-১ ব্যবধানে) জয় নিশ্চিত করে রাখে ইংল্যান্ড।