যে লক্ষণগুলো দেখে বুঝবেন আপনার সঙ্গীর একাধিক প্রেমিকা আছে!

যে লক্ষণগুলো দেখে বুঝবেন আপনার সঙ্গীর একাধিক প্রেমিকা আছে!

নিউজডেস্ক২৪: সময়ের সঙ্গে সঙ্গে বদলে গেছে প্রেমের ধরণও। যেন সেই রজকিনীও নেই, আর শুকনো পুকুরে বড়শি ফেলে ১২ বছর অপেক্ষায় থাকার সেই চন্ডিদাসও নেই। এখন আর লাইলির প্রেমে পাগল হয়ে পথে পথে ঘুরে না কোনও মজনু। অথবা ইউসুফের প্রেমের অপেক্ষায় পথ চেয়ে থাকেন না জুলেখা।

তারপরও মানব-মানবীর প্রেমের মধ্য দিয়েই চারপাশের পৃথিবীটা সুন্দর হয়ে উঠে। তবে এখন আর সারা রাত জেগে প্রেমিক-প্রেমিকারা চিঠি লিখেন না। চিঠির মাধ্যম হয়ে উঠেছে মোবাইল ফোনের একখানি ছোট ম্যাসেজ কিংবা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমগুলো।

বলা হয়ে থাকে- ভালবাসার বড় শক্তির নাম বিশ্বাস। পারস্পরিক বিশ্বাসের উপরই রচিত হয় ভালবাসার ভিত। কিন্তু আপনার সঙ্গী যদি দ্বিতীয়-তৃতীয় কারও সঙ্গে সম্পর্ক রাখে তাহলে কিভাবে সেটি বুঝবেন। আজকাল একজনের একাধিক মেয়ের সঙ্গে সম্পর্কতো ডালভাতের মতো হয়ে উঠেছে।

আপনার প্রেমিকও কি তাই করছে? কী করে বুঝবেন? হ্যাঁ, অন্য কোনও মেয়ের সঙ্গে তার সম্পর্ক আছে কিনা সেটি বুঝার জন্য আপনাকে কিছু টিপস মাথায় রাখতে হবে।

চলুন জেনে নিই কী সেই টিপসগুলো:

* তিনি আপনাকে সময় দিতে পারেন না। অনেক সময়েই দেখা যায়, আপনি দেখা করতে চাইলে তিনি এড়িয়ে যাচ্ছেন।

* আপনার সাথে দেখা করার বদলে অন্য কিছু করছেন তিনি, কী করছেন সেটা আবার আপনাকে জানাচ্ছেন না! আপনি জিজ্ঞেস করলে এড়িয়ে যাচ্ছেন, জানার জন্য চাপাচাপি করলে দায়সারা কোনো একটা জবাব দিয়ে দিচ্ছেন।

* তিনি প্ল্যান ক্যানসেল করতে পটু। অনেক সময়েই আপনার সাথে দেখা করার কথা থাকলেও তিনি হুট করেই প্ল্যান ক্যানসেল করছেন। সমস্যা হিসেবে নেহায়েতই হাস্যকর কিছু অজুহাত দেখাচ্ছেন যেমন, পেট ব্যথা বা মাথাব্যথা।

* শুধু যে প্ল্যান ক্যানসেল তা নয়, অনেক সময়ে তিনি হুট করে আপনার সাথে দেখা করতে চাইতে পারেন। এটা কীসের লক্ষণ? হয়তো তার অন্য কোনো প্রেমিকার সাথে দেখা করার কথা ছিল। ওই প্রেমিকা ক্যানসেল করায় আপনার সাথে দেখা করতে চাচ্ছেন তিনি।

* তিনি আপনাদের সম্পর্ককে কোনো নাম দিতে চান না। সম্পর্কের প্রথম দিকে এ বিষয়টি স্বাভাবিক। কিন্তু সম্পর্ক বেশ কিছুদূর অগ্রসর হবার পরেও তিনি যদি দাবি করেন আপনারা ‘শুধুই বন্ধু’, তিনি সম্পর্কটাকে ‘জটিল’ করতে চান না, বা আপনাকে ‘স্বাধীনতা’ দিতে চাচ্ছেন, তাহলে হয়তো তার আরও প্রেমিকা আছে এবং তিনি শুধু আপনার সাথে জড়িয়ে যেতে চান না।

* আপনার প্রেমিক যদি সোশ্যাল মিডিয়ায় তেমন সক্রিয় না থাকেন, তাহলে একটু লক্ষ্য রাখুন। অনেকেই সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার করেন না তেমন। তবে ফেসবুক, ইনস্টাগ্রাম থাকার পরেও তিনি তেমন একটা পোস্ট করেন না। যাতে প্রেমিকারা তাদের সাথে তোলা সেলফি পোস্ট করতে চাপাচাপি করতে না পারে, সে কারণেই হয়ত তিনি পোস্ট কম করেন।

* তিনি চান না আপনি তার বাসায় বা অফিসে আসুন। কারণ আপনি সেখানে উপস্থিত হলে দেখা যাবে পরিবারের কেউ, অথবা সহকর্মী তার অন্য প্রেমিকার কথা বলে দিয়েছে। এমনকি দুই প্রেমিকা একসাথে সেখানে উপস্থিত হতে পারে। এ কারণে তিনি খুব শক্তভাবে তার বাসায় বা অফিসে যোগাযোগ করতে নিষেধ করে দেন।

* ঘণ্টার পর ঘণ্টা খুঁজেও তাকে পাচ্ছেন না। তিনি হয়তো সারা সপ্তাহ আপনার সাথে টেক্সট চালাচালি করে যাচ্ছেন। অথচ শুক্র-শনিবারে তাকে খুঁজেই পাওয়া যায় না। কোনোভাবেই যোগাযোগ করা যায় না। আবার রবিবার থেকে তিনি আগের মতোই কথা বলে যাচ্ছেন। এমনটা হলে খটকা লাগাই স্বাভাবিক।

* নিজের অনুভূতিকে প্রাধান্য দিন। আপনার কি মনে হচ্ছে তার কোনো একটা সমস্যা আছে? তিনি আপনার সাথে বিশ্বস্ত নন? এমন মনে হলে তার সাথে খোলাখুলি কথা বলুন এবং তাকে জানান, আপনি এমন খেলো একটা সম্পর্কে থাকতে রাজি নন।

* আপনার প্রেমিকের ফোন সব সময় ‘ডেড’ থাকে। আপনি তাকে ফোন করে পান না। আবার তিনি যখন আপনার সাথে আছেন, তখনো তার ফোন অফ। তিনি দাবি করেন চার্জ দিতে ভুলে গেছেন। এমনটা একবার দুবার হতে পারে, বারবার নয়। হয়তো আপনার সামনে অন্য প্রেমিকার ফোন ধরতে চান না বা মেসেজ চেক করতে চান না বলেই তিনি ফোন অফ করে রাখেন।