ত্বকের যত্নে ঘি এর ব্যবহার!

ত্বকের যত্নে ঘি এর ব্যবহার!

নিউজডেস্ক২৪: খাবারের স্বাদ ও গন্ধ বজায় সহ খাবারের গুণগত মান ঠিক রাখতে অধিক সময়ে ঘি এর ব্যবহার হয়ে আসছে যুগ যুগ ধরে। কিন্তু জানেন কি এই ঘি আপনার রান্নার কাজ ছাড়াও আরও কিছু কাজে আসে। ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়াতে এই উপাদান বেশ কার্যকর। ঘি বয়সের ছাপ কমিয়ে ত্বকের আদ্রতা ধরে রাখতে সাহায্য করে।

আসুন জেনে নেই ত্বকের যত্নে ঘি এর ব্যবহার:- 

ত্বকের প্রাকৃতিক ময়েশ্চারাইজার:-

ত্বকের আদ্রতা বাড়াতে আমরা প্রতিদিন নানা ধরনের উপকরণ ব্যবহার করে থাকি। এবার ঘি ব্যবহার করে দেখতে পারেন। প্রাকৃতিক ভাবেই আপনার ত্বক আর্দ্র হয়ে যাবে। কোন কারনে আপনার ত্বক শুষ্ক হয়ে গেলে খাদ্য তালিকায় ঘি রাখুন। 

ত্বক বুড়িয়ে যাওয়া ঠেকাতে:-

বয়সের কারণে আমাদের শরীর ও ত্বক বুড়িয়ে যায়। তবে আপনি যদি প্রতিদিন খাদ্র তালিকায় প্রতিদিন ঘি রাখেন, তাহলে তার প্রভাব পড়বে আপনার ত্বকে। সমবয়সীদের তুলনায় আপনার ত্বক দেখাবে অনেকটাই উজ্জ্বল। 

ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়াতে:-

ঘি আপনার ত্বকের জন্য প্রয়োজনীয় ভিটামিন ই ও কে সরবরাহ করবে। প্রতিদিন রাতে ঘুমানোর আগে হাতে সামান্য ঘি নিয়ে পাঁচ মিনিট মুখে হালকা ম্যাসাজ করুন। এবার পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এটি ত্বকের শুষ্কতা দূর করে ত্বককে উজ্জ্বল করে।

ঠোঁট কোমল ও গোলাপি রাখতে:-

শুষ্ক ও ফোটা ঠোঁটের জ্বালা এড়াতে ঘি ব্যবহার করুণ। ঠোঁট ভাল জন্য লিপজেল এর চেয়ে কার্যকর ঘি। কিছুদিন এর ব্যবহার এর ফলে আপনার ঠোঁট হয়ে উঠবে কোমল এবং উজ্জ্বল গোলাপি। 

চোখের কালি দূর করতে:-

চোখের নিচে কালি দূর করতে ঘি কার্যকর উপাদান। এর জন্য এক ফোঁটা ঘি নিয়ে তা চোখের চার পাশে ভাল ভাবে ম্যাসেজ করুন এবং সারারাত রেখে সকালে উঠে তা পানি দিয়ে ভাল ভাবে ধুয়ে ফেলুন।

ত্বক ম্যাসাজ:-

ত্বক ম্যাসাজ এ ঘি ব্যবহার করতে পারেন। দু’চামচ ঘি হালকা গরম পানিতে মেশান। এবার সেই মিশ্রণ পুরো মুখে মেখে নিন। ২০ মিনিট রেখে মুখ ধুয়ে ফেলুন। দেখবেন ত্বক অনেকটাই পরিষ্কার হয়ে গেছে।

প্রতিদিন স্কাল্পে ঘি ম্যাসাজ করুন। এতে করে আপনার মাথার রক্ত চলাচল বাড়বে, আপনি সুস্থ থাকবেন।