‘পুঁজিবাজারে বিনিয়োগকারীদের সতর্কতার সঙ্গে বিনিয়োগ করতে হবে’

‘পুঁজিবাজারে বিনিয়োগকারীদের সতর্কতার সঙ্গে বিনিয়োগ করতে হবে’

নিউজডেস্ক২৪: আগামী ৫ বছর পুঁজিবাজারে বিনিয়োগকারীদের জন্য চ্যালেঞ্জিং বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। এসময়ে সতর্কতার সঙ্গে বিনিয়োগকারীদের বিনিয়োগ করতে হবে বলে সতর্ক করেছেন তিনি।

আজ শনিবার বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। রাজধানীর কৃষিবিদ ইনস্টিটিউটে বিশ্ব বিনিয়োগকারী সপ্তাহ উপলক্ষে এই সেমিনারের আয়োজন করা হয়।

আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেন, আমাদের বিনিয়োগ আসলেই খুবই কম। আমরা এখন হয় তো ৩০ শতাংশ বিনিয়োগ করছি। তার মধ্যে ২২ শতাংশ বেসরকারি খাতের, বাকিটা সরকারের। আমাদের প্রতিবেশী দেশগুলোতে বিনিয়োগের হার অনেক বেশি। ভারতে বিনিয়োগের হার সব সময় বেশি ছিল। এটা নতুন কিছু নয়, ত্রিশের দশকেও ভারতের বিনিয়োগের হার ৩০ শতাংশের বেশি ছিল।

তিনি বলেন, আমরা একটু একটু করে ঠেলেঠুলে বিনিয়োগ প্রায় ৩০ শতাংশে নিয়ে এসেছি। আশা করছি, এটা আরও একটু বাড়বে এবং আর একটু বাড়লে আমাদের অর্থনীতির যে একটি ঊর্ধ্বগতি এসেছে এটা আরও বেগবান হবে, আর শক্তিশালী হবে।

অর্থমন্ত্রী বলেন, পুঁজিবাজারকে স্থিতিশীল করতে সরকারের পক্ষ থেকে যেসব উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে সেগুলো অব্যাহত থাকলে বিনিয়োগকারীরা সুবিধা পাবেন। আর যদি ব্যহত হয় তবে ফের ঝুঁকি সৃষ্টি হবে।

অর্থমন্ত্রী বলেন, শেখ হাসিনার সরকার ১০ বছর ক্ষমতায় আছে নিরবচ্ছিন্নভাবে, এটা জাতির জন্য একটা সৌভাগ্য। এমন নিরবচ্ছিন্ন ক্ষমতায় না থাকলে, এ রকম ঊর্ধ্বগতি এতো সহজে পাওয়া যায় না। আরও পাঁচটি বছর যদি শেখ হাসিনাকে ক্ষমতায় অধিষ্ঠিত করতে পারি তাহলে বাংলাদেশ এমন একটি পর্যায়ে পৌঁছাবে সেখান থেকে ১০-১৫ বছরে একটি সমৃদ্ধশালী দেশ গড়ে উঠতে কোনও অসুবিধা হবে না।

তিনি বলেন, শক্তিশালী পুঁজিবাজারের ভিত সৃষ্টি হয়েছে। তবে দেশে দু’বার পুঁজিবাজারে ধ্বস নেমেছে। এটি নিয়ে বিনিয়োগকারীরা চিন্তিত।

শেয়ারবাজারে অর্থলগ্নিকারীদের নিজের বিবেচনা থেকে বিনিয়োগের আহবান জানিয়ে এম এ মুহিত বলেন, বিনিয়োগকারীদের সতর্ক থাকতে হবে।  

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের নির্বাহী পরিচালক মাহবুবুল আলম।