প্রেমে পড়লে স্বাস্থ্য বাড়ে!

প্রেমে পড়লে স্বাস্থ্য বাড়ে!

নিউজডেস্ক২৪: অস্ট্রেলিয়ার সেন্ট্রাল কুইন্সল্যান্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি গবেষণায় দেখা গেছে, মানুষ প্রেমে পড়লে সত্যিই মানবদেহের ওজন বৃদ্ধি পায়। প্রায় ১৫ হাজার মানুষ এই সমীক্ষায় অংশগ্রহণ করে। এরমধ্যে দম্পতিরা যেমন ছিল, তেমনি প্রেমে পড়া এমন নারী-পুরুষও ছিল। এদের লাইফস্টাইল, খাবার রুচি, পছন্দ অপছন্দ বিভিন্নরকম। সমীক্ষা চলাকালীন পুরুষ ও মহিলা, উভয়ের বডি মাস ইনডেক্স বা BMI পরীক্ষা করা হয়। এর পরই প্রকাশ পায় এই তথ্য।

সম্পর্কে জড়ালে জীবনে প্রচুর পরিবর্তন আসে। এরমধ্যে প্রথম ও প্রধানতম হল লোকের চোখে আকর্ষণীয় হওয়ার ইচ্ছা কমে যাওয়া। তখন কাউকে ইমপ্রেস করার চেষ্টা থাকে না। চাপ অনেকটা কমে যায়। অতএব নিজের ইচ্ছামতো কাজ করা যায়। যে খেতে ভালবাসে, সে পছন্দমতো খাবার খেতে থাকে। ফলে বাড়তে থাকে দেহের ওজন। মোটা হতে থাকে শরীর।

প্রেমে পড়ার পর কাজ ছাড়া বেশিরভাগ সময়টাই কাটে বাড়িতে। গল্প করেই সময় কেটে যায়। যারা কারণে অকারণে বাড়ির বাইরে যেত, তারা ওই সময়টুকু নষ্ট না করে সঙ্গীকে দিতেই পছন্দ করে। শরীরচর্চা করার সময় কমে আসে। অনেকসময় তো রুটিন থেকে শরীরচর্চার সময়টুকুই বাদ পড়ে যায়। অনেকসময় এও দেখা যায় একজনের অস্বাস্থ্যকর অভ্যাসের প্রভাব পড়ে আর একজনের উপর। যাদের দেহের ওজন ব্যালেন্সে রাখার অভ্যাস রয়েছে, তাদের লাইফস্টাইল একটি নির্দিষ্ট নিয়মে বাধা থাকে। যতদিন তারা সিঙ্গল থাকে, হাজার ব্যস্ততার মধ্যেও ঠিক শরীরচর্চার জন্য সময় বের করে নেয়। কিন্তু প্রেমে পড়লে ঘেঁটে যায় সব রুটিন। আর এর ফলেই দেহের ওজন বৃদ্ধি হয়।

তবে এগুলিই শুধু কারণ নয়। হরমোনও এক্ষেত্রে বিরাট ভূমিকা পালন করে। প্রেমে পড়লে দেহে হ্যাপি হরমোনের নিঃসরণ বেড়ে যায়। অক্সিটোসিন ও ডোপামিনের মতো হরমোন বেশি পরিমাণে নির্গত হয়। এর ফলে চকোলেট, ওয়াইন ও ক্যালোরিযুক্ত খাবারের প্রতি আসক্তি বেড়ে যায়। এর প্রভাব পড়ে মানসিক অবস্থার উপর।