সাপ-কুমিরের সঙ্গে মানুষের বসবাস!

সাপ-কুমিরের সঙ্গে মানুষের বসবাস!

নিউজডেস্ক২৪: কফি টেবিলের মধ্যে একটা আস্ত চন্দ্রবোড়া, বাগানে ঘুরে বেড়াচ্ছে ৫০ কিলোগ্রামের একটা আস্ত কচ্ছপ। আর সাত ফুটের একটা কুমির গড়াগড়ি দিচ্ছে বিছানায়। দরজার সামনেও অপেক্ষায় কয়েকটা কুমির। না, এটা কোনও সায়েন্স ফিকশন সিনেমা নয়। বাস্তব।

ফ্রান্সের পশ্চিমে নান্তেস সিটিতে ৬৭ বছরের ফিলিপে গিলেটের প্রিয় বন্ধুই বলা যায় তাদের! তবে শুধু চন্দ্রবোড়াই নয়, র‌্যাটল স্নেক, ট্যারান্টুলা, বিচিত্র প্রজাতির টিকটিকি মিলে প্রায় ৪০০টি সরীসৃপ থাকে ফিলিপের বাড়িতে।

গিলেট বলেন, তাঁর সবচেয়ে প্রিয় হল দুটি কুমির, একটি নাম এলি, অপরটিক নাম গেটর।

চামড়ার কারখানার পাশে জলাশয় থেকে তাঁদের উদ্ধার করেছিলেন ফিলিপে। এ ছাড়াও বিভিন্ন জায়গা থেকে অসহায় প্রাণীদের নিয়ে এসে আশ্রয় দিয়েছেন তাঁরই বাড়িতে।

প্রিয় গোসাপটিকে চামচ দিয়ে খাবার খাওয়াতে খাওয়াতে সংবাদ সংস্থাকে তিনি বললেন, ‘‘সরীসৃপ দেখলেই মানুষ ঘৃণা করে। কিন্তু ওরা অসহায়। ওরা কিন্তু কারও ক্ষতি করে না স্বেচ্ছায়। ওদের জানলে, ওদের চিনলে প্রত্যেকেরই অসম্ভব ভাল লাগবে।’’

তাঁর কথায় প্রতিবেশীদেরও খুব একটা আপত্তি নেই এই পোষ্যদের নিয়ে। তবে স্থানীয় দমকল দফতর কিন্তু এ বিষয়ে সতর্ক করেছেন, যাতে কোথাও আগুন লাগলে এই বাড়িতে কেউ আশ্রয় নিতে ঢুকে না পড়েন।