হাসপাতাল থেকে ফের কারাগারে যাচ্ছেন খালেদা জিয়া

হাসপাতাল থেকে ফের কারাগারে যাচ্ছেন খালেদা জিয়া

নিউজডেস্ক২৪: বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতাল থেকে বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়াকে ফিরিয়ে নেয়া হচ্ছে নাজিম উদ্দিন রোডের পুরনো কারাগারে। এ ব্যাপারে ইতিমধ্যে সব প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে বলে জানা গেছে।

আজ বৃহস্পতিবার (৮ নভেম্বর) দুপুর ১২টায় খালেদা জিয়াকে পুরান ঢাকার পুরাতন কেন্দ্রীয় কারাগারে নেয়া হবে বলে নিশ্চিত করেছে কারা অধিদফতর।

কারা সূত্র জানিয়েছে, আজ তার আদালতে হাজিরা আছে, হাসপাতাল থেকে সেখানে নিয়ে যাওয়া হবে, হাজিরা শেষ হলে তাকে কারাগারে নেয়া হতে পারে।

এছাড়া বিএসএমএমইউ এর একটি সূত্র জানিয়েছে, আজ স্বাস্থ্য পরীক্ষা শেষে চিকিৎসকদের পক্ষ থেকে একটি ব্রিফিং করা হবে। সেখানেই তাকে কারাগারে নেয়ার বিষয়ে সিদ্ধান্ত জানানো হবে।

সকাল থেকেই বিএসএমএমইউ এর চারপাশে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। আশপাশের এলাকায় মোতায়েন করা হয়েছে বিপুল সংখ্যক পুলিশ সদস্য। একইভাবে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে নাজিমউদ্দিন রোডের পুরাতন কারাগারের আশপাশেও।

এর আগে বুধবার আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের সাংবাদিকদের বলেছিলেন, প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সংলাপে ঐক্যফ্রন্ট খালেদা জিয়ার মুক্তি চায়নি, জামিন চেয়েছে। তবে আদালত যদি তাকে জামিন দেয় তাহলে আমাদের কোনো আপত্তি নেই।

গত ৩০ অক্টোবর জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় খালেদা জিয়ার সাজা পাঁচ থেকে বাড়িয়ে ১০ বছর করেছেন হাইকোর্ট। এছাড়া অপর আসামিদের ১০ বছরের সাজা বহাল রাখা হয়েছে। সেদিন আদালত বলেছেন, রায়ের কার্যকর অংশটুকু ঘোষণা করা হচ্ছে। তিনটি আপিল ( খালেদা জিয়া, সাবেক সাংসদ কাজী সালিমুল হক কামাল ও ব্যবসায়ী শরফুদ্দিন আহমেদ) খারিজ করা হলো। দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) করা রিভিশন আবেদনের রুল যথাযথ ঘোষণা করা হলো। খালেদা জিয়ার সাজা বাড়িয়ে ১০ বছরের কারাদণ্ড করা হলো।

ঢাকার পঞ্চম বিশেষ জজ আদালতের বিচারক মো. আখতারুজ্জামান গত ৮ ফেব্রুয়ারি এ মামলার রায়ে খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দেন।

প্রসঙ্গত, ৬ অক্টোবর খালেদা জিয়াকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) আনা হয়। বিকাল ৩টা ৪১ মিনিটে বিএসএমএমইউ’র প্রধান ফটকের সামনে পৌঁছান তিনি।

খালেদা জিয়ার জন্য আদালতের নির্দেশে পাঁচ সদস্যের মেডিক্যাল টিম গঠন করা হয়েছে। এর সদস্যরা হচ্ছেন কার্ডিওলজির অধ্যাপক সজল কৃষ্ণ ব্যানার্জী, রিউমাটোলজি বিভাগের অধ্যাপক সৈয়দ আতিকুল হক, অর্থোপেডিক বিভাগের অধ্যাপক নকুল কুমার দত্ত, মেডিসিন বিভাগের অধ্যাপক আব্দুল জলিল চৌধুরী, ফিজিক্যাল মেডিসিনের সহযোগী অধ্যাপক বদরুন্নেসা আহমেদ।

এর মধ্যে তিনজন খালেদা জিয়ার নিযুক্ত চিকিৎসক, বাকি দুজন সরকার নিযুক্ত নিরপেক্ষ চিকিৎসক।

এর আগে চলতি বছরের ৭ এপ্রিল বেগম খালেদা জিয়াকে চিকিৎসার জন্য কারাগার থেকে বিএসএমএমইউতে আনা হয়েছিল। তখন তার শরীরের কয়েকটি পরীক্ষা-নিরীক্ষা পুনরায় জেলাখানায় পাঠানো হয়।