1313 শীতে শ্বাসের ব্যায়াম

সোমবার, ৮ আগস্ট ২০২২ । ২৪ শ্রাবণ ১৪২৯ । ৯ মহররম ১৪৪৪

শীতে শ্বাসের ব্যায়াম

শীতে শ্বাসের ব্যায়াম

নিউজডেস্ক২৪: শীতকালে হাঁপানি বা ব্রংকাইটিস রোগীর শ্বাসকষ্ট বাড়ে। এ ছাড়া শুষ্ক ঠান্ডা আবহাওয়ায় শ্বাসকষ্টের জন্য দায়ী ভাইরাস সংক্রমণও বেড়ে যায়। এদিকে বিশ্বব্যাপী আবার বাড়ছে করোনা। তাই এই শীতে ফুসফুসের কার্যকারিতা বৃদ্ধির জন্য সবার ব্যায়াম করা জরুরি। প্রতিদিনের অ্যারোবিক ব্যায়াম আপনার ফিটনেস বাড়াবে। বাড়াবে রোগ প্রতিরোধক্ষমতা। এ ছাড়া সব বয়সীদের জন্য ফুসফুসের ব্যায়ামও গুরুত্বপূর্ণ।

শ্বাসের নানা রকম ব্যায়াম আছে। প্রায় সব সুস্থ মানুষ করতে পারেন, এমন একটি শ্বাসের ব্যায়ামের উদাহরণ দেওয়া হচ্ছে। প্রথমে সোজা হয়ে দাঁড়িয়ে দুই পায়ের পাতা ওঠানামা করতে হবে ৩০ সেকেন্ড। অনেকটা দ্রুত বাম-ডান করার মতো। কিন্তু এখানে শুধু পায়ের পাতা ওঠানামা করবে; দ্বিতীয় ধাপে সোজা হয়ে কোমরে হাত দিয়ে দাঁড়াতে হবে। নাক দিয়ে ধীরে শ্বাস নিতে হবে, তারপর শিস দেওয়ার মতো করে শ্বাস ছাড়তে হবে।

এটি তিনবার করতে হবে; এবার হাঁটু ভাঁজ করে দ্রুত ডান-বাম করতে হবে ৩০ সেকেন্ড। এটাকে বলা হয় হাই নি জাম্প। এ ক্ষেত্রে হাঁটু উঁচু করে ডান-বাম করতে হবে; এরপর এবার আবার সোজা হয়ে দাঁড়িয়ে নাক দিয়ে শ্বাস নিতে হবে ও শিসের মতো করে শ্বাস ছাড়তে হবে। এটা করতে হবে তিনবার।

যাঁদের আগে থেকেই শ্বাসকষ্ট বা ফুসফুসের কার্যক্ষমতা কম বা সমস্যা আছে, তাঁদের ব্যায়াম মুখে শিস দেওয়ার মতো করে শ্বাসের ব্যায়াম

প্রথমে সোজা হয়ে একটি চেয়ারে বসুন। খেয়াল রাখতে হবে যেন মেরুদণ্ড সোজা থাকে। এবার ধীরে ধীরে নাক দিয়ে শ্বাস নিন। ১০ সেকেন্ড বা আপনার শ্বাস ধরে রাখার ক্ষমতা অনুযায়ী সর্বোচ্চ ২০ সেকেন্ড ধরে রাখুন। এবার মুখ শিস দেওয়ার মতো করে ছোট ছোট শ্বাস ছাড়তে থাকুন। পুরো প্রক্রিয়াটি তিনবার করুন।

পেট দিয়ে শ্বাসের ব্যায়াম

প্রথমে চিত হয়ে শুয়ে পড়ুন। এবার একটি হাত পেটের ওপর দিন। ধীরে ধীরে নাক দিয়ে শ্বাস নিন। খেয়াল করুন পেট ফুলে উঠেছে। এই অবস্থায় ১০ থেকে ২০ সেকেন্ড ধরে রাখুন। এবার ধীরে ধীরে মুখ দিয়ে শ্বাস ছাড়ুন। ব্যায়ামটি সাতবার করুন।

যাঁরা নিয়মিত ইয়োগা করেন, তাঁরা সুস্থ ফুসফুসের জন্য সেতু আসন করতে পারেন।

সেতু আসন

প্রথমে চিত হয়ে শুয়ে পড়ুন। এবার হাঁটু ভাঁজ করে কোমর বা হিপের কাছাকাছি নিয়ে আসুন। এ সময় হাত দুটো মেঝেতে শরীরের দুই পাশে থাকবে। এবার ধীরে ধীরে কোমরটিকে ওপরে তুলুন। স্বাভাবিক শ্বাসপ্রশ্বাস নিতে থাকুন। এই অবস্থা ২০ সেকেন্ড ধরে রাখুন। এবার কোমর মেঝেতে নিয়ে আসুন। পুরো প্রক্রিয়াটি ১০ বার করুন।

এ ছাড়া নিয়মিত হাঁটা বা জগিং করার অভ্যাস করে তোলা উচিত। অতিরিক্ত কুয়াশা হলে বয়স্ক ব্যক্তিরা ঘরে বসেই নিয়মিত ব্যায়াম করতে পারেন।