লম্বা চুল নিয়ে বিশ্ব রেকর্ড গড়লেন নীলাংশী

লম্বা চুল নিয়ে বিশ্ব রেকর্ড গড়লেন নীলাংশী

নিউজডেস্ক২৪: রূপকথার র‌্যাপুনজেলের গল্প নিশ্চয়ই অনেকে শুনেছেন। ওই যে, দীর্ঘ লম্বা চুলের র‌্যাপুনজেল যাকে এক জাদুকর আটকে রাখত বদ্ধ বাড়িতে যেখানে উপরে ওঠার কোনো সিঁড়ি কিংবা মই ছিল না। যাদুকর ডাকতেই র‌্যাপুনজেল তার লম্বা চুল ছেড়ে দিত জানালা দিয়ে । আর যাদুকর সেই চুল বেড়ে উপরে উঠতো। বাস্তবে এমনই এক র‌্যাপুনজেলের সন্ধান পাওয়া গেছে যার লম্বা চুলের জন্য ইতিমধ্যে তার নাম উঠেছে গিনেস রেকর্ড অব বুকে। যদিও তাকে কোনও জাদুকর আটকে রাখেনি।

বাস্তবের এই র‌্যাপুনজেলের নাম নীলাংশী প্যাটেল।বাড়ি ভারতের গুজরাটে। জানা যায়, ১০ বছর আগে পার্লারে চুল কাটাতে গিয়ে বিব্রতকর পরিস্থিতির মুখোমুখি হয়েছিল নীলাংশী। সেখানে তার চুল এমনভাবে কেটেছিল যে নীলাংশী খুব বিরক্ত ও রাগ হয়েছিল। তারপর থেকে সে চুল কাটা বন্ধ করে দিয়েছিল। মাত্র ৬ বছর বয়সেই সিদ্ধান্ত নিয়েছিল, কোনদিনই আর চুল কাটবে না।

সত্যিই এরপরে আর কোন দিন চুল কাটেননি নীলাংশী। সেই চুল বাড়তে বাড়তে এখন কোমর পেরিয়ে পায়ের নিচ পর্যন্ত চলে গেছে। বিশ্বের সব থেকে লম্বা চুলের অধিকারিণী হিসেবে গিনেস ওয়ার্ল্ডের খেতাব জয় করেছেন এই কিশোরী। তার চুলের দৈর্ঘ্য এখন ৫ ফুট ৭ ইঞ্চি।

লম্বা চুলের জন্য নীলাংশীর বন্ধুরা ভালবেসে তাকে র‌্যাপুনজেল বলে ডাকে। এত লম্বা চুল কীভাবে সামলান নীলাংশী তা নিয়ে অনেকেরই কৌতুহল আছে। বাস্তবের র‌্যাপুনজেল জানান, সপ্তাহে একবার চুলে শ্যাম্পু করেন তিনি। আর এত লম্বা চুল আঁচড়াতে সাহায্য করেন তার মা। চুল বিভিন্নভাবে সাজাতেও পছন্দ করেন তিনি। স্টাইল করতে হলে লম্বা বেনী বা উঁচু করে খোঁপা বাঁধেন। কোনও অনুষ্ঠানে বা টেবিল টেনিস খেলতে গেলে চুলগুলো মাথায় উঁচু করে খোঁপা করে নেন যাতে কাজ করার জন্য তা আরামদায়ক হয়।

নীলাংশী বলেন, ‘অনেকেই মনে করেন এত লম্বা চুল সামলাতে নিশ্চয়ই অনেক সমস্যায় পড়তে হয় আমাকে। কিন্তু আমার সত্যিই কোনও সমস্যা হয় না। আমি লম্বা চুল নিয়ে খেলাধুলাও করি, অন্য সব কাজও করি।’ নিজের চুলকে তিনি সৌভাগ্যের প্রতীক বলেই মনে করেন।