মৃত্যুর গুজবে কষ্ট পেয়ে যা বললেন কাজী হায়াৎ

মৃত্যুর গুজবে কষ্ট পেয়ে যা বললেন কাজী হায়াৎ

নিউজডেস্ক২৪: জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার জয়ী নির্মাতা কাজী হায়াতের ঘাড়ের একটি রক্তনালি ব্লক হয়ে গেছে। উন্নত চিকিৎসার জন্য তিনি গত ২২ ডিসেম্বর নিউইয়র্কে গেছেন। বর্তমানে সেখানকার একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রয়েছেন তিনি।

এদিকে হঠাৎ করেই বুধবার (৯ জানুয়ারি) রাতে নন্দিত এই নির্মাতার মৃত্যুর গুজব ছড়িয়ে পড়ে সোশ্যাল মিডিয়াতে। যেটা নিয়ে অনেকটা কষ্টই পেয়েছেন কাজী হায়াৎ। তার মৃত্যুর খবরকে গুজব দাবি করে নির্মাতা কাজী হায়াৎ নিজে ফেসবুক লাইভে এসে তার বেঁচে থাকার বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

বার্তায় নির্মাতা বলেন, আমি হাসপাতালে আছি। অসুস্থ, কিন্ত বেঁচে আছি। যারা মিথ্যে কথাটা ছড়িয়েছে তাদের আমি নিন্দা করি। কেনো এই মিথ্যে কথা? আমি খুব কষ্ট পেলাম। সবাই আমার জন্য দোয়া করবেন, আমি যেনো ভালো হয়ে বাংলাদেশে ফিরে যেতে পারি।

অন্যদিকে বাবার মৃত্যুর গুজব ছড়িয়ে পড়ায় ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দেন কাজী মারুফও। তিনি লিখেন, ‘আমার বাবা ভালো আছেন। প্লিজ, কেউ অপপ্রচার চালাবেন না।’

অসুস্থ হয়ে কিছুদিন আগে নিউইয়র্কের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রয়েছেন কাজী হায়াৎ। সেখানে তার সঙ্গে তার স্ত্রী ও তার ছেলে চিত্রনায়ক কাজী মারুফ।

২০০৪ সালে হৃৎপিণ্ডে দুটি রিং বসানো হয়েছিল প্রখ্যাত এই চলচ্চিত্র নির্মাতার। ২০০৫ সালে ওপেন হার্ট সার্জারি করা হয় তাঁর। এরপর গত বছরের জানুয়ারিতে আবারও হৃৎপিণ্ডে সমস্যা দেখা দিলে বরেণ্য এই নির্মাতা প্রধানমন্ত্রীর কাছে সাহায্যের জন্য আবেদন করেন। তারপর গত বছর প্রধানমন্ত্রীর কাছ থেকে ১০ লাখ টাকা অনুদান পান তিনি।

চলতি মাসেই শুরু হওয়ার কথা নির্মাতার ‘বীর’ ছবিটির শুটিং। এই ছবির নায়ক-নায়িকা দেশের অন্যতম সুপারস্টার শাকিব খান ও আলোচিত শবনম বুবলী। তবে অসুস্থ হয়ে আমেরিকা পড়ে থাকায় ছবির কাজ আপাতত পিছিয়ে দেয়া হয়েছে।