রিয়াল মাদ্রিদে ফিরে এসে যা বললেন জিদান

রিয়াল মাদ্রিদে ফিরে এসে যা বললেন জিদান

নিউজডেস্ক২৪: সময়টা মোটেও ভালো যাচ্ছে না স্প্যানিশ জায়ান্ট রিয়াল মাদ্রিদের। এক সপ্তাহেই তিনটি প্রতিযোগীতা থেকে ছিটকে পড়েছে তারা। প্রথমে কোপা ডেল রেতে বার্সেলোনার বিপক্ষে ৩-০ ব্যবধানে ম্যাচ হেরে বিদায় নেয়। এরপর লা লিগায় বার্সেলোনার বিপক্ষে হেরে শিরোপার লড়াই থেকে ছিটকে যায় এবং সবশেষ চ্যাম্পিয়নস লিগ থেকে তারা বিদায় নেয় আয়াক্সের কাছে হেরে।

আর এমন সময় রিয়াল শিবিরে এলো দারুণ এক সুসংবাদ। বহু নাটকের পর মিল হলো রিয়াল-জিদানের। রিয়ালের সঙ্গে নতুন চুক্তিতে ২০২২ সাল পর্যন্ত কোচের দায়িত্বে থাকবেন ফ্রেঞ্চম্যান জিদান। দায়িত্ব কাঁধে নেওয়ার পর সংবাদ সম্মেলনে তার সঙ্গী ছিলেন সাবেক ক্লাব সতীর্থ রাউল গঞ্জালেস, রবার্টো কার্লোস, বোর্ড পরিচালক ও স্ত্রী ভেরোনিক।

প্রেসিডেন্ট ফ্লোরেন্তিনো পেরেজ বলেন, ‘এটা নতুন একটি শুরু, নতুন যুগের শুরুতে আমাদের পথ দেখানোর দায়িত্বে জিনেদিন জিদান। বিশ্বের সেরা কোচটি এখানে, ধন্যবাদ জিজু (জিদানের ডাকনাম) তোমাকে কিংবদন্তি এই ক্লাবের অংশ হওয়ার জন্য।’

এরপরেই দ্বিতীয় মেয়াদে দায়িত্ব নেওয়া জিদান বলেন, ‘আমি জানি এটা একটা বিশেষ দিন, সবার জন্য, আমি খুবই খুশি। সবচেয়ে বড় কথা হচ্ছে প্রেসিডেন্ট বলেছেন আমি ফেরায় তিনি খুশি। আসলে আর কিছুই বলার নেই, আমি ফিরতে পেরে দারুণ খুশি এবং আমি কাজ করতে চাই ও এই ক্লাব যেখানের যোগ্য আমি তাদের সেখানে নিতে চাই। কাল থেকেই আমি অনুশীলনে নজর দিচ্ছি।’

গত গ্রীষ্মে দল ছেড়ে দেওয়ার পরও অবশ্য জিদান স্পেন ছাড়েননি। তিনি যোগ করেন, ‘আমি খুব বেশি দূরে যাইনি, আমি এখনও এখানেই আছি। তবে এই ক্লাব ও স্কোয়াডের সঙ্গে কাজ করতে পেরে আমি খুবই খুশি।’

এদিকে রিয়াল কেন ছেড়েছিলেন, এমনটি জানতে চাওয়া হলে জিদান বলেন, ‘আমি ক্লাবের ভালোর জন্য ছেড়েছিলাম। সবকিছু জয়ের পর স্কোয়াডে একটি পরিবর্তন দরকার ছিল।’ তিনি আরও বলেন, ‘আমি ফিরে এসেছি কারণ প্রেসিডেন্ট আমাকে ফোন করেছেন এবং আমি তাকে ও এই ক্লাবকে ভালোবাসি। আট মাস পরে আমি আবারও কোচ হতে চেয়েছি। আমি এই সিদ্ধান্ত নিয়েছি সবার ভালোর জন্য।’