ওভার থ্রোর ৬ রান নিয়ে যা বললো আইসিসি

ওভার থ্রোর ৬ রান নিয়ে যা বললো আইসিসি

নিউজডেস্ক২৪: বিশ্বকাপ ফাইনালের শেষ ওভারের চতুর্থ বলে মার্টিন গাপটিলের ওভার থ্রো থেকে ৪ এবং দৌড়ে ২ সহ মোট ৬ রান পায় ইংল্যান্ড। এ সিদ্ধান্ত ছিল শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচ পরিচালনা করা অন-ফিল্ড আম্পায়ার কুমার ধর্মসেনা ও মারাইস এরাসমুসের। এতেই ম্যাচের মোড় ঘুরে যায়। এর ফলে মূল ম্যাচ টাই হওয়ায় গড়ায় সুপার ওভারে। সেখানেও টাই হওয়ায় বাউন্ডারি হিসাবে জয়ী হয় ইংলিশরা।

সাধারণ নিয়মানুযায়ী, ওই থ্রো থেকে স্বাগতিকদের পাওয়ার কথা ৫ রান। এমনটা হলে ম্যাচের ফল ভিন্ন হতে পারত। কারণ, নন-স্ট্রাইকে থাকতেন বেন স্টোকস। কে জানে স্ট্রাইকে থাকা আদিল রশিদকে তুলেও নিতে পারতেন ওই ওভার করা কিউই পেসার ট্রেন্ট বোল্ট। অতীতে এরকম বহু নজির আছে তার।

নিউজিল্যান্ডের শিরোপা হাতছাড়া হয়ে যাওয়ার পর থেকে বিতর্কের কেন্দ্রবিন্দুতে ওই ওভার থ্রো। আম্পায়ারদের কল্যাণে ৬ রান পাওয়া ইংল্যান্ড শিরোপা উৎসব করলেও সোশ্যাল মিডিয়ায় চলছে তুমুল সমালোচনা। ঘি ঢেলে সেই সমালোচনার আগুনে আরও উসকে দিয়েছেন সাবেক বিশ্বসেরা আম্পায়ার সাইমন টাফেল। তার মতে, এটি পরিষ্কার ভুল সিদ্ধান্ত আম্পায়ারদের। বিশ্ব ক্রিকেটের অধিকাংশ নায়ক-মহানায়করাও তাতে সম্মতি দিচ্ছেন।

এতদিন এ নিয়ে নানা বিতর্ক হলেও মুখে কুলুপ এঁটেছিল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি)। অবশেষে ‘বিতর্কিত’ ওই ওভার থ্রোর ব্যাখ্যা দিল ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা।

আইসিসির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা জানান, মাঠে দায়িত্বরত আম্পায়াররা নিয়ম সম্পর্কে নিজেদের ধারণা থেকে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। পলিসির কারণে অন-ফিল্ড আম্পায়াদের সিদ্ধান্ত নিয়ে আমরা মন্তব্য করি না। অর্থাৎ দায় এড়িয়ে গেল ক্রিকেটের অভিভাবক সংস্থা। বুঝিয়ে দিল,আম্পায়াররা সঠিক সিদ্ধান্তই নিয়েছেন!

আইসিসির নিয়ম (১৯.৮) অনুযায়ী,ওভার থ্রোর বাউন্ডারির ক্ষেত্রে ফিল্ডার বল ছোড়ার সঙ্গে সঙ্গে ব্যাটসম্যানদের পরস্পরকে ক্রস করতে হবে। তবেই সেই বাউন্ডারির সঙ্গে ফিল্ড রান যোগ হবে।

টেলিভিশন রিপ্লেতে স্পষ্ট দেখা গেছে, ডিপ মিডউইকেট থেকে গাপটিল বল ছোড়ার সময় স্ট্রাইক ব্যাটসম্যান স্টোকস এবং তার নন-স্ট্রাইকে থাকা রশিদ দ্বিতীয় রানের সময় পরস্পরকে ক্রস করেননি। নিয়ামানুযায়ী সেটি দুই রান হয় না,হয় এক! অথচ আম্পায়ার দেন দুই রানের সিদ্ধান্ত। ওই বলে অতিরিক্তসহ ৬ রান যোগ হয় ইংল্যান্ডের স্কোরবোর্ডে। অথচ হওয়ার কথা ছিল ৫ রান।