বৃষ্টি আইনে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হারালো ভারত

বৃষ্টি আইনে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হারালো ভারত

নিউজডেস্ক২৪: প্রথম ওয়ানডেতে কষ্টার্জিত জয়ের পর দ্বিতীয় ম্যাচেই ফর্মে ফিরল টিম ইন্ডিয়া। মিয়ামিতে দ্বিতীয় টি-২০ ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ২২ রানে হারাল ভারত। বৃষ্টিবিঘ্নিত ম্যাচে ডাকওয়ার্থ লুইস নিয়মে জিতলেন বিরাটরা।

মিয়ামিতে পুরানো ছন্দে ফিরলেন রোহিত শর্মা। বিশ্বকাপে সেমিফাইনালে পরাজয়ের আগে যে ফর্মে পাঁচটি সেঞ্চুরি করেছিলেন, সেই ফর্মকে যেন নিজের ব্যাটে তুলে নিয়ে এসেছিলেন এদিন। গত শনিবারের ম্যাচে উইকেটে যে স্যাঁতসেঁতে ভাব ছিল, তা শুষে নিয়েছিল এদিন প্রবল সূর্যালোক। পিচের এই চরিত্র ঠিকঠাক বুঝে নেওয়ার কারণে অধিনায়ক বিরাট কোহলি টস জিতে ব্যাটিং করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন। অচিরেই বোঝা গেল অধিনায়ক বিরাটের সিদ্ধান্ত ছিল একদম ঠিক।

রোহিত ৫০ রানে পৌঁছে যান ১১ ওভারেই। উল্টোদিকে তখন ব্যাট করছিলেন স্বয়ং অধিনায়ক। কিন্তু ওই মুহূর্ত পর্যন্ত ওয়েস্ট ইন্ডিজকে দিশেহারা মনে হচ্ছিল রোহিত শর্মার কারণেই। এদিন আরও একটি রেকর্ড গড়লেন তিনি। আন্তর্জাতিক টি২০ ক্রিকেটে সবচেয়ে বেশি ছয় মারার রেকর্ড ছিল ‘‌ইউনিভার্সাল বস’ ক্রিস গেইলের‌। সেই তাকেই এদিন টপকালেন রোহিত।

প্রায় একই ভঙ্গিমায় শুরু করেছিলেন শিখর ধাওয়ানও। কিন্তু ২৩ রান করে শিখর বোল্ড হয়ে যান কিমো পলের বলে। এতটুকু দমে না গিয়ে রোহিত একইরকমভাবে ক্যারিবিয়ান বোলারদের মাঠের বাইরে তুলে ফেলছিলেন বারবার। সঙ্গে চলছিল দ্রুত গতিতে দুই উইকেটের মাঝখানে দৌড়। শেষ পর্যন্ত রোহিত আউট হন ওসেন টমাসকে ছয় মারতে গিয়ে। ৫১ বলে ৬৭ রান করে ভারতকে যথেষ্ট শক্ত জায়গায় রেখে যান। অধিনায়ক কোহলি অবশ্য বেশি রান করতে পারেননি। ২৮ রান করতে খেললেন ২৩ বল। আর শেষদিকে ক্রুনাল পান্ডিয়ার ঝড়ো ২০ রান (১৩ বলে‌) ভারতের রানকে পৌঁছে দেয় ১৬৭ রানে।‌

জবাবে ব্যাট করতে নেমে কেমন যেন গুটিয়ে ছিলেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের ব্যাটসম্যানরা। আর সেই সুযোগে একের পর এক উইকেট তুলে নেন ভারতীয় বোলাররা। প্রথম ওভারেই শূন্য রানে ওপেনার লুইসকে ফেরান ভুবনেশ্বর। এরপর মাত্র চার রান করে ওয়াশিংটন সুন্দরের বলে ফিরে যান সুনীল নারিন। এরপর পুরান (৩৪ বলে ১৯‌) এবং পাওয়েল (‌৩৪ বলে ৫৪) দলকে টেনে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন। কিন্তু বৃষ্টি নামার আগে দু’‌জনেই ফিরে যান সাজঘরে। এরপর বৃষ্টিতে আর ম্যাচ শুরু না করতে পারায় ভারত ২২ রানে জিতে যায়। এই জয়ের ফলে টি-২০ সিরিজে ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেল বিরাট বাহিনী।