‘নড়াইলে চাকরি করতে হলে স্বচ্ছতার সঙ্গে কাজ করতে হবে’

‘নড়াইলে চাকরি করতে হলে স্বচ্ছতার সঙ্গে কাজ করতে হবে’

নিউজডেস্ক২৪: সরকারের বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজে স্বচ্ছতা বজায় রাখা এবং অনিয়ম ও দুর্নীতি বন্ধে নড়াইলের বিভিন্ন দপ্তরের সরকারি কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করেছেন নড়াইল-২ আসনের সংসদ সদস্য ও ক্রিকেটার মাশরাফি বিন মর্তুজা।

বুধবার (৭ আগস্ট) দুপুর সাড়ে ১২টা থেকে জেলা প্রশাসকের (ডিসি) সম্মেলন কক্ষে দুই ঘণ্টাব্যাপী বৈঠক হয়। বৈঠক চলাকালে সরকারি কর্মকর্তাদের সঙ্গে খোলামেলা কথা বলেন মাশরাফি । ওই সময় তিনি সরকারি কর্মকর্তাদের হুঁশিয়ার করে বলেন, নড়াইলে চাকরি করতে হলে স্বচ্ছতার সঙ্গে কাজ করতে হবে।

নড়াইলের ডিসি আনজুমান আরার সভাপতিত্বে বৈঠকে পুলিশ সুপার (এসপি) মোহম্মদ জসিম উদ্দিন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) ইয়ারুল ইসলাম, সিভিল সার্জন আসাদ-উজ জামান মুন্সী, সদর হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. আবদুস শাকুরসহ সরকারের বিভিন্ন বিভাগের কর্মকর্তা ও জনপ্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠকে উপস্থিত কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, এমপি মাশরাফি বিন মোর্ত্তজা কর্মকর্তাদের সঙ্গে খোলামেলা কথা বলেন। বিভিন্ন দপ্তরের কাজের অগ্রগতি ও সমস্যার কথা শোনেন। কয়েকটি দপ্তরের কর্মকর্তার অনিয়ম ও দুর্নীতির ইঙ্গিত দিয়ে মাশরাফি বলেন- ‘আপনারা কে কী কাজ করছেন, অনিয়ম ও দুর্নীতি করছেন, তার তথ্য আমার কাছে আছে। এমনকি ভিডিও আমার কাছে আছে। আপনাদের নড়াইলে কাজ করতে ভালো না লাগলে প্রয়োজনে অন্যত্র বদলি হয়ে যাবেন। কিন্তু নড়াইলে চাকরি করতে হলে অবশ্যই স্বচ্ছতার সঙ্গে কাজ করতে হবে। কোনো কাজে অনিয়ম হলে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আমাকেই ধরবেন। আপনাদের কিছুই বলবেন না। আমি নড়াইলকে একটি বাসযোগ্য জেলা হিসেবে গড়তে চাই। এজন্য আপনাদের সবার সহযোগিতা কামনা করি।’

ওই কর্মকর্তারা আরও জানান, মাশরাফির কথা শুনে দুর্নীতি ও অনিয়মে জড়িত বেশ কয়েকজন কর্মকর্তা ঘাবড়ে যান। তবে স্বচ্ছতার সঙ্গে কাজ করা বেশ কয়েকজন কর্মকর্তা ভীষণ খুশি হন।

বৈঠকের বিষয়ে নড়াইলের ডিসি আনজুমান আরা বলেন, ‘বিভিন্ন উন্নয়নকাজে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহি এবং গুণগত মান যাতে ভালো হয়, সে বিষয়ে বৈঠকে মাননীয় সংসদ সদস্য দিকনির্দেশনামূলক বক্তব্য দেন। এছাড়া জেলার উন্নয়নে আর কী কী পদক্ষেপ নেওয়া যায়, সে ব্যাপারেও সবার সঙ্গে আলোচনা করেন।’

বৈঠকের শুরুতে ৫ মিনিটের জন্য সাংবাদিকদের থাকার অনুমতি মেলে। ওই সময় বক্তব্যকালে মাশরাফী বলেন, ‘মাদককে জিরো টলারেন্সে আনতে হবে, সে যেই হোক, তাদের ধরতে হবে। আমরা চাই যারা মাদক ব্যবসার সঙ্গে যুক্ত, তারা ধরা পড়লে কেউ যেন ছাড়াতে না যাই।’ ওই সময় ডেঙ্গু প্রতিরোধে সবাইকে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা বজায় রাখার অনুরোধ করেন তিনি।