আফগানিস্তানে বোমা হামলায় নিহত ৬৩

আফগানিস্তানে বোমা হামলায় নিহত ৬৩

নিউজডেস্ক২৪: আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলের একটি বিলাসবহুল হোটেলে বিয়ের অনুষ্ঠানে আত্মঘাতী বোমা হামলায় ৬৩ জন নিহত হয়েছে। এ সময় আহত হয়েছে ১৮০ জনেরও বেশি।

আজ রোববার (১৮ আগস্ট) বিবিসি, ইন্ডিয়া টুডে, সিএনএনসহ একাধিক আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম জানিয়েছে, গতকাল শনিবার স্থানীয় সময় রাত ১০টা ৪০ মিনিটে পশ্চিম কাবুলের শিয়া অধ্যুষিত দুবাই হোটেলে এ হামলা চালানো হয়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, এক আত্মঘাতী হামলাকারী বিয়ের অনুষ্ঠানে বোমা হামলা চালানোর পর তারা অনেক লাশ পড়ে থাকতে দেখেছেন।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র নাসারাত রহিমি ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। কিন্তু হামলার ব্যাপারে এখনো বিস্তারিত জানা যায়নি বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

বিয়েতে আমন্ত্রিত অতিথি মোহাম্মদ ফারহাগ বলেন, বোমা বিস্ফোরণের সময় বিশেষ কাজে নারীদের হলঘরে ছিলেন তিনি। পুরুষরা যে অংশে ছিল, সেখানে হঠাৎ বোমা বিস্ফোরিত হয়। এতে আতঙ্কে ছোটাছুটি শুরু করে সবাই।

তিনি বলেন, প্রায় ২০ মিনিটের মতো পুরো হলঘর ধোঁয়াচ্ছন্ন ছিল। পুরুষদের অংশের প্রায় সবাই নিহত বা আহত হয়েছেন। বিস্ফোরণের দুই ঘণ্টা পরও সেখান থেকে লাশ বের করা হচ্ছে।

এখন পর্যন্ত কোনো গোষ্ঠীই এ হামলার দায় স্বীকার করেনি। তবে আফগানিস্তান ও পাকিস্তানের শিয়া হাজারা জনগোষ্ঠীকে লক্ষ্য করে উগ্র জঙ্গিগোষ্ঠী তালেবান ও আইএস মাঝেমধ্যেই এ ধরনের হামলা চালিয়ে থাকে।

এর আগে গত ৭ আগস্ট কাবুল পুলিশ স্টেশনের কাছে ভয়াবহ বোমা বিস্ফোরণে ১৪ জন প্রাণ হারায়। এ ঘটনায় আহত হয় প্রায় ১৫০ জন।

গত ৩১ জুলাই আফগানিস্তানের পশ্চিমাঞ্চলীয় ফারাহ প্রদেশে রাস্তার পাশে পুঁতে রাখা বোমা বিস্ফোরণে ৩৪ বাসযাত্রী নিহত ও আহত হয় ১৭ জন। বালা বুলুক জেলার কান্দাহার-হেরাত মহাসড়কে এ ঘটনা ঘটে।

এ ছাড়া গত ৭ জুলাই আফগানিস্তানে গোয়েন্দা বাহিনীর একটি কার্যালয়ে গাড়িবোমা হামলার ঘটনায় ১২ জন নিহত হয়। এর মধ্যে আটজনই নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্য এবং বাকি চারজন বেসামরিক।

আফগানিস্তানে চলমান দীর্ঘস্থায়ী যুদ্ধের সমাপ্তি টানতে সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্র ও তালেবান গোষ্ঠীর মধ্যে শান্তি আলোচনা চলছে। এর মধ্যেই একের পর এক হামলায় ওই আলোচনা কতটা ফলপ্রসূ হবে তা নিয়ে শঙ্কা দেখা দিয়েছে।