রেকর্ড গড়া জয় নয়, চোখ রাঙাচ্ছে লজ্জার হার

রেকর্ড গড়া জয় নয়, চোখ রাঙাচ্ছে লজ্জার হার

নিউজডেস্ক২৪: লক্ষ্যটা পাহাড়সম, প্রয়োজন ৩৯৮ রান। জেতার জন্য অতিমানবীয় এক ইনিংস খেলতে হবে সাকিবের হাতেগড়া টেস্ট খেলুড়ে বাংলাদেশ দলকে। জিততে হলে ভাঙতে হবে অতিতের সব রেকর্ড।

দ্বিতীয় ইনিংসে ধীরে শুরু করা লিটন-সাদমানের জুটি লাঞ্চ ব্রেক পর্যন্ত বেশ দেখে শুনে খেললেও লাঞ্চ বিরতি থেকে ফেরার পর জহির খানের প্রথম বলেই জীবন পান লিটন কুমার দাস। রিভিউ নিয়ে আম্পায়ারের সিদ্ধান্তকে ভুল প্রমান করেন তিনি।কিন্তু দুই বল পর এলবি ডাব্লিউর ফাঁদে পড়েন বাংলাদেশী এই ওপেনার। ফলে বরাবরের মতো নিজেকে চেনাতে ব্যর্থ হলেন লিটন।

লিটন আউট হওয়ার পর নতুন ব্যাটসম্যান হিসেবে মাঠে নেমেছেন মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত।আগের ইনিংসে আশার প্রদীপ হয়ে এসেছিলেন মোসাদ্দেক। যার কারণে দ্বিতীয় ইনিংসে তাকে আট থেকে নামানো হয় তিনে।অথচ এদিন তিনি সবাইকে হতাশ করে তাড়াহুড়ো করতে যেয়ে ফিরলেন মাত্র ১২ রান করে। অফস্টাম্পের অনেক বাইরে রাখা জহির খানের বলটি ড্রাইভ করতে গিয়ে আকাশে তুলে দেন তিনি। লংঅফে সে ক্যাচ সহজেই লুফে নিয়েছেন আসগর আফগান।

প্রথম ইনিংসে শূন্য রানে আউট হওয়া মুশফিক দ্বিতীয় ইনিংসের শুরুতেই হাত খুলে খেলা শুরু করেন। মুশফিকের খেলার ধরণ দেখে মনে হচ্ছিল তিনি টি-টুয়েন্টি খেলতে এসেছেন।শেষ পর্যন্ত ২৫ বলে ২৩ রান করে রশিদ খানের এলবি ডাব্লিউর ফাঁদে পড়ে নিজের উইকেট দিয়ে আসেন তিনি।

মুশফিকের পর বাংলাদেশের টেস্ট স্পেশালিস্ট মুমিনুলও পড়েছেন রশিদের স্পিন ফাঁদে। এলবি ডাব্লিউর শিকার হওয়ার আগে ব্যক্তিগত খাতায় জমা করেন মাত্র ৩ রান।মাত্র ৮২ রানেই চার উইকেট হারিয়ে চরম বিপর্যয়ে পড়েছে বাংলাদেশ। এ অবস্থা থেকে দলকে টেনে তোলার দায়িত্ব নেন দলের অধিনায়ক সাকিব আল হাসান।তরুণ ওপেনার সাদমান ইসলামকে নিয়ে ম্যাচের আশা টিকিয়ে রাখার চেষ্টা করছেন।কিন্তু ৩৬.৪ ওভারে নাবীর বলে এলবি ডাব্লিউর ফাঁদে পড়েন সাদমান।১১৪ বল খেলে করেন ৪১ রান।

এর পরে মাঠে আসেন সদ্য ইনজুরি থেকে দলে ফেরা অভিজ্ঞ মাহমুদুল্লাহ ।ধীরে ইনিংস শুরু করলেও ২১ বলে ৭ রান করে সাজঘরে ফেরেন বেশ কিছুদিন ধরে নিজেকে হারিয়ে খোঁজা মাহমুদুল্লাহ। স্কোরবোর্ডে তখন বাংলাদেশের সংগ্রহ ৬ উইকেটে ১২৫ রান।

এরপর মাঠে নামেন প্রথম ইনিংসসের ওপেনার সৌম্য সরকার। ৫ বল খেললেও এখনও নিজের রানের খাতা খুলতে পারেননি তিনি। অপরপ্রান্তে ৪৬ বলে ৩৯ রানে অপরাজিত রয়েছেন অধিনায়ক সাকিব।বৃষ্টির কারণে নির্ধারিত সময়ের আগে শেষ হয় চতুর্থ দিনের খেলা। দিন শেষে বাংলাদেশের সংগ্রহ ৪৪.২ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে ১৩৬ রান।