গোপালগঞ্জে মাঠ থেকে শিশুর গলাকাটা লাশ উদ্ধার

গোপালগঞ্জে মাঠ থেকে শিশুর গলাকাটা  লাশ উদ্ধার

নিউজডেস্ক২৪: কাশিয়ানী উপজেলার চাপ্তা রেল স্টেশন থেকে নিখোঁজ হয়েছিল ছয় বছর বয়সী শিশু সুমা। তার সন্ধানে সব জায়গায় খোঁজাখুঁজি করে পরিবারের লোকজন। অবেশেষে গভীর রাতে একটি মাঠের মধ্যে শিশুটিকে পাওয়া গেলেও তার শরীরে ছিল না প্রাণ। দুর্বৃত্তরা তার গলা-হাত ও পায়ের রগ কেটে মাঠের মধ্যে তার লাশ ফেলে রেখে যায়।

লোমহর্ষক এই ঘটনাটি ঘটেছে গোপালগঞ্জের কাশিয়ানী উপজেলায়। বুধবার দিবাগত রাত তিনটার দিকে উপজেলার কুসুমদিয়া গ্রামের পরিত্যক্ত একটি জমি থেকে শিশুটির লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। শিশুটিকে খুনে জড়িত সন্দেহে দুইজনকে আটক করা হয়েছে।

নিহত সুমা খানম কাশিয়ানী উপজেলার রাতইল ইউনিয়নের চাপ্তা গ্রামের মো. মিজান শেখের মেয়ে। সে চাপতা ২২ নং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রথম শ্রেণির ছাত্রী।

কাশিয়ানী থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) গনেশ বিশ্বাস জানান, বুধবার কাশিয়ানী উপজেলার চাপ্তা রেল স্টেশন থেকে নিখোঁজ হয় সুমা। এরপর থেকে বিভিন্ন স্থানে খোঁজ করেও তার কোনো সন্ধান পায়নি পরিবারের লোকজন। পরে বিষয়টি পুলিশকে জানানো হয়।

বুধবার দিবাগত রাত তিনটার দিকে কাশিয়ানী উপজেলার কুসুমদিয়া গ্রামের পরিত্যক্ত একটি জমিতে সুমার লাশ পড়ে থাকতে দেখে এলাকাবাসী। খবর পেয়ে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে গোপালগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠায়।

কাশিয়ানী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আজিজুর রহমান জানান, শিশুটির গলা, হাত ও পায়ের রগ কেটে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য দুইজনকে আটক করা হয়েছে।