চীনের করোনা টিকা নিয়েছেন কিম জং উন

চীনের করোনা টিকা নিয়েছেন কিম জং উন

নিউজডেস্ক২৪: করোনাভাইরাস মহামারি থেকে বাঁচতে নিজের এবং পরিবারের জন্য চীনের তৈরি টিকা নিয়েছেন উত্তর কোরীয় নেতা কিম জং উন। চীন বিশেষভাবে কিম পরিবারকে এই টিকা সরবরাহ করেছে। জাপানের গোয়েন্দা সূত্রের বরাত দিয়ে রয়টার্সকে এমন তথ্য জানিয়েছেন এক মার্কিন বিশ্লেষক হ্যারি কাজিয়ানিস।

উত্তর কোরিয়াবিষয়ক বিশ্লেষক কাজিয়ানিস বলেছেন, কিমসহ উত্তর কোরিয়ার জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তাদেরও টিকা দেওয়া হয়েছে। তবে টিকার নাম এবং কোন প্রতিষ্ঠানের তৈরি তা জানা যায়নি। এছাড়া ওই টিকা নিরাপদ কি না তাও জানাতে পারেননি তিনি।

নাইনটিনফোরটিফাইভ নামের অনলাইন সাইটে এক নিবন্ধে কাজিয়ানিস লিখেছেন, ‘গত দুই থেকে তিন সপ্তাহের মধ্যে কিম জং উনসহ তার পরিবারের সদস্য, উচ্চপর্যায়ে কর্মকর্তা ও নেতৃত্ব পর্যায়ে থাকা লোকজনকে টিকা দেওয়া হয়েছে। চীনা সরকারের পক্ষ থেকে ওই টিকা সরবরাহ করা হয়েছে।’

যুক্তরাষ্ট্রের চিকিৎসাবিজ্ঞানী পিটার জে হোটেজকে উদ্ধৃত করে কাজিয়ানিস বলেছেন, কমপক্ষে তিনটি চীনা প্রতিষ্ঠান করোনার টিকা তৈরি করছে। এর মধ্যে রয়েছে সিনোভ্যাক বায়োটেক লিমিটেড, ক্যানসিনো ও সিনোফার্ম গ্রুপ। এরই মধ্যে প্রায় দশ লাখ মানুষকে টিকা দিয়েছে সিনোফার্ম। তবে তিন প্রতিষ্ঠানেরই চূড়ান্ত পর্যায়ের ফলাফল এখনো প্রকাশ করা হয়নি।

করোনাভাইরাস মহামারির শুরু থেকেই দেশটিতে এই ভাইরাসের উপস্থিতি অস্বীকার করে আসছে উত্তর কোরিয়া। এ বিষয়ে কোনো তথ্য জানায়নি কিম প্রশাসন। যদিও দক্ষিণ কোরিয়ার গোয়েন্দা সংস্থাগুলোর মতে, উত্তর কোরিয়ার সবচেয়ে বেশি বাণিজ্য সম্পর্ক রয়েছে চীনের সঙ্গে। এই কারণে চীন থেকে উত্তর কোরিয়ার করোনা সংক্রমণ ঘটে থাকতে পারে।

করোনাভাইরাস মহামারি ছড়িয়ে পড়ার পর গত জানুয়ারি থেকেই চীনের সঙ্গে সীমান্ত বন্ধ করে দেয় উত্তর কোরিয়া। সম্প্রতি খবর বেরিয়েছিল যে, ব্রিটেনসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে টিক তৈরির তথ্য হাতানোর জন্য হ্যাকিং চেষ্টা চালিয়েছে উত্তর কোরিয়া। তবে এ বিষয়েও বরাবরের মতো চুপ থেকেছে কিম প্রশাসন।