ঢাকা, শনিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮ | ০৭ আশ্বিন ১৪২৫ | ১১ মহররম ১৪৪০

ধূমপান করছে হাতি!

ধূমপান করছে হাতি!

নিউজডেস্ক২৪: ধূমপান করছে হাতি! অবিশ্বাস্য হলেও এমনই একটি মুহূর্তের ভিডিও ছড়িয়ে পড়েছে ইন্টারনেটে। এতে হতবাক সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং জগত। ভিডিওতে দেখা যায়, একটি বুনো হাতি কিছুক্ষণ পর পর একরাশ ধোঁয়া ছাড়ছে মুখ দিয়ে।

ভিডিওটি ব্যাপক শেয়ার হয় বিভিন্ন সোশ্যাল প্লাটফর্মে। হাতির এ অদ্ভুত কর্মকাণ্ডের সঠিক কারণ নিয়ে বিশেষজ্ঞদের চলে নানা রকম বিচার-বিশ্লেষণ। কেউ কেউ মজা করে মন্তব্য করেন, জঙ্গলে বসে সিগারেট ফুঁকছিল হাতিটি। 

ভিডিওটি ধারণ করা হয় ভারতের কর্ণাটকের একটি জঙ্গলে। আর তা ধারণ করেন একটি প্রাণী সংরক্ষণ সংস্থার সদস্য ও বন্যপ্রাণী বিশেষজ্ঞ বিনয় কুমার। 

জানা যায়, ট্র্যাপ ক্যামেরায় বনের মধ্যে বাঘের ছবি ধারণ করার জন্য আরও কয়েকজন সহকর্মীর সঙ্গে এক সকালে বনে প্রবেশ করেন বিনয়। হঠাৎ নজর যায় ৫০ মিটার দূরে দাঁড়ানো একটি হাতির দিকে। হাতিটি মুখের ভেতর কাঠকয়লা ঢোকাচ্ছিলো এবং এরমধ্যে থাকা ছাইগুলো বাতাসের মাধ্যমে মুখ থেকে বের করে দিচ্ছিলো। দূর থেকে দেখলে মনে হবে যেন ধূমপান করছে হাতিটি।

ভিডিওটি সম্পর্কে ভারতের ‘ওয়াইল্ডলাইফ কনসারভেশন সোসাইটি’র একটি বিবৃতিতে বলা হয়, এটিই প্রথম ভিডিও যেখানে হাতিকে এমন অদ্ভুত কর্মকাণ্ড করতে দেখা গেছে এবং তা ধাঁধায় ফেলে দিয়েছে বিজ্ঞানীদের।

হাতি বিশেষজ্ঞ বরুন গোস্বামী ভিডিওটি দেখে একটি ব্যাখ্যা দাঁড় করান। তার মতে, হাতিটি কাঠকয়লার ছাই বাতাসের মাধ্যমে বের করে দিয়ে বাকি অংশ পাকস্থলীতে চালান করে দিচ্ছিলো। কাঠকয়লায় তেমন কোনো পুষ্টি উপাদান না থাকলেও, এর রয়েছে ব্যথা নিরাময় ক্ষমতা। 

তাছাড়া এটি ল্যাক্সাটিভ (হজম সমস্যা ও কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করতে) হিসেবেও কাজ করে। এসব কারণে বন্যপ্রাণীরা অনেক সময় বজ্রপাত বা আগুনে সৃষ্ট কাঠকয়লায় প্রতি আকৃষ্ট হতে পারে।