মর্গের ফ্রিজে জেগে উঠলো ‘মৃত’ নারী!

মর্গের ফ্রিজে জেগে উঠলো ‘মৃত’ নারী!

নিউজডেস্ক২৪: দক্ষিণ আফ্রিকার হাসপাতাল মর্গের ফ্রিজে এক ‘মৃত’ নারী জেগে ওঠার ঘটনা ঘটেছে। ওই নারীকে এখন হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। তবে ওই নারীর নাম জানা যায়নি। খবর বিবিসি ও খালিজ টাইমসের।

বিবিসির তথ্য মতে,  গত ২৪ জুন সড়ক দুর্ঘটনার শিকার ওই নারীকে প্যারামেডিকসরা মৃত ঘোষণা করেন। পরে তাকে গাওটেং প্রদেশের একটি মর্গে নেয়া হয়। কিন্তু মর্গের একজন কর্মী ফ্রিজে রাখা ওই নারীর মরদেহের খোঁজ নিতে গিয়ে দেখেন, তিনি শ্বাস নিচ্ছেন। পরে ফরেনসিক কর্মকর্তাদের নির্দেশে তাকে হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।  অ্যাম্বুলেন্স কোম্পানি ডিস্ট্রেস অ্যালার্টের অপারেশন ম্যানেজার গেরিট ব্র্যান্ডনিক বলেন, আমরা ঠিকঠাক মতোই আমাদের কাজ করেছি- আমাদের কোনও ধারণা নেই ঘটনাটি কীভাবে ঘটলো।

তিনি দুঃখপ্রকাশ করে বলেন, আমাদের কোম্পানির কর্মচারী খুবই মর্মাহত। আমরা জীবিত মানুষকে মৃত করার জন্য এই ব্যবসায় নামিনি বরং আমাদের কাজ হচ্ছে মানুষকে বাঁচিয়ে তোলা।

তিনি আরও জানান, পালস, হার্টবিট সব পরীক্ষা করেই আমরা এই নারীকে মৃত ঘোষণা করেছিলাম। অ্যাম্বুলেন্স সেবাদানকারী এ সংস্থাটি ঘটনাটির জন্য একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছে। তবে দক্ষিণ আফ্রিকায় এ ধরনের ঘটনা এটিই প্রথম নয়। সাত বছর আগে ৫০ বছর বয়সী এক ব্যক্তি ইস্টার্ন কেপ মর্গে চিৎকার করে ওঠেন।

২০১৬ সালেও কজুলু নাতালে সড়ক দুর্ঘটনার শিকার এক ব্যক্তিকে মৃত ঘোষণা করা হয়। কিন্তু পরের দিন দেখা যায় তিনি শ্বাস নিচ্ছেন। যদিও এর পাঁচ ঘণ্টা পর তিনি মারা যান।