ঢাকা, সোমবার, ২০ আগস্ট ২০১৮ | ০৫ ভাদ্র ১৪২৫ | ০৮ জিলহজ ১৪৩৯

যুক্তরাষ্ট্রের প্রথম মুসলিম নারী কংগ্রেসম্যান হতে যাচ্ছেন রাশিদা

যুক্তরাষ্ট্রের প্রথম মুসলিম নারী কংগ্রেসম্যান হতে যাচ্ছেন রাশিদা

নিউজেডস্ক২৪: ফিলিস্তিনি বংশোদ্ভূত রাশিদা তালিব যুক্তরাষ্ট্রের প্রথম মুসলিম নারী কংগ্রেসম্যান হিসেবে নির্বাচিত হতে যাচ্ছেন। মিশিগান রাজ্যের সাবেক এই আইনপ্রণেতা ডেমোক্রেট দল থেকে মনোনয়ন পান। খবর দ্য ইন্ডিপেনডেন্ট, টাইমস।

মিশিগানের ডিস্ট্রিক ১৩ প্রাইমারির নির্বাচনে ডেমোক্রেটদের মনোনয়ন পেয়েছেন রাশিদা। এই আসনে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের দল রিপাবলিকান পার্টি কিংবা তৃতীয় কোনও দলের প্রার্থী না থাকায় নভেম্বরের নির্বাচনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় রাশিদা নির্বাচিত হতে যাচ্ছেন।

১৯৬৫ সাল থেকে এই আসনটি জন কোনিয়ের্সের দখলে ছিল। যৌন নিপীড়নের অভিযোগে ২০১৭ সালের ডিসেম্বরে তিনি পদত্যাগের ঘোষণা দেন। যার কারণে  আসনটি শূন্য হয়।রাশিদা এমন সময় মার্কিন কংগ্রেসের সদস্য হতে যাচ্ছেন, যখন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও তার সমর্থকদের মুসলিমবিরোধী কর্মকাণ্ডের জবাবে মুসলিমরা দেশটিতে রাজনৈতিক সম্পৃক্ততা বাড়ানোর কথা ভাবছে।

আশঙ্কা করা হচ্ছে, রাশিদা কংগ্রেসম্যান হিসেবে দায়িত্ব নিলে ট্রাম্প ও তার উগ্র জাতীয়তাবাদী সমর্থকদের মুসলিম-বিদ্বেষী প্রচারণা আরও বাড়বে। এ ধরনের ইসলামবিদ্বেষ ২০০১ সালে টুইন টাওয়ারে সন্ত্রাসী হামলার আগে তেমন বেশি চোখে পড়তো না।

উল্লেখ্য যে, চলতি বছরের নভেম্বর মাসে যুক্তরাষ্ট্রে মধ্যবর্তী নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। তার আগে বিভিন্ন অঙ্গরাজ্যে মঙ্গলবার প্রাইমারি অনুষ্ঠিত হয়েছে। এবারের নির্বাচনে রেকর্ড সংখ্যক মুসলিম প্রার্থী রয়েছে। যে কারণে এবারের নির্বাচন নিয়ে বেশি আলোচনাও হচ্ছে।

রাশিদা তালিব মঙ্গলবারের প্রাইমারিতে বিজয়ী হয়ে দুটি ঐতিহাসিক ঘটনা সৃষ্টি করেছেন। একটি হচ্ছে জাতীয় পর্যায়ে তিনিই প্রথম নির্বাচিত মুসলিম নারী । আর দ্বিতীয়টি হচ্ছে তিনিই প্রথম আরব-আমেরিকান মুসলিম নারী। এর আগে কংগ্রেসে দুজন মুসলিম পুরুষ নির্বাচিত হয়েছিলেন, তারা দুজনই আবার আফ্রিকান-আমেরিকান কমিউনিটির সদস্য।